আড়াই হাজারের টাকার জন্য জোড়া খুন | আমাদেরবাংলাদেশ.কম
বৃহস্পতিবার, ২৯ জুলাই ২০২১, ০৮:১৩ অপরাহ্ন

আড়াই হাজারের টাকার জন্য জোড়া খুন

  • সর্বশেষ আপডেট রবিবার, ১১ জুলাই, ২০২১

ঢাকা।। গাজীপুরের কোনাবাড়ি বাঘিয়া এলাকায় জোড়া খুনের ঘটনার সাত দিন পর নিহতদের পরিচয় শনাক্ত ও মূল আসামী সহ দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

পাওনা টাকার বিরোধের জেরে এ দু জনকে হত্যা করা হয় বলে জানিয়েছে পুলিশ।

আজ রবিবার (১১ জুলাই) দুপুরে গাজীপুর মহানগর পুলিশ কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলনে এমন দাবি করেন উপ-পুলিশ কমিশনার জাকির হাসান। নিহতরা হলেন, রংপুরের মাহমুদুল হাসান ও নিলফামারীর রাকিব হোসেন।

জাকির হাসান জানান, গত ৭ জুলাই কোনাবাড়ির পরিত্যক্ত ইটভাটার পাশের বিল থেকে অজ্ঞাত দুজনের মরদেহ উদ্ধার করে পুলিশ। এ ব্যাপারে উপ-পরিদর্শক তাপস কুমার ওঝা বাদী হয়ে কোনাবাড়ি থানায় মামলা দায়ের করেন। পুলিশ তথ্যপ্রযুক্তি ও গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে ১০ জুলাই কালিয়াকৈরের চন্দ্রা থেকে সৈকতকে গ্রেপ্তার করে। পরে তার দেয়া তথ্যের ভিত্তিতে মূল আসামি রাসেল প্রধানকে নিজ বাড়ী গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ থেকে গ্রেপ্তার করা হয়। গ্রেপ্তারকৃত রাসেল প্রধান জোড়া খুনের ঘটনায় নিজের সম্পৃক্ত থাকার কথা স্বীকার করেছেন।

প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে গ্রেপ্তার রাসেল প্রধান জানান, তিনি এবং নিহত দু’জন একটি বেকারিতে কাজ করতেন। নিহত মাহমুদুল হাসানের কাছে আড়াই হাজার টাকা পাওনা ছিল তার। টাকা পরিশোধ বিরোধের জেরে মাহমুদুল কে হত্যার পরিকল্পনা করেন রাসেল। পরিকল্পনা অনুযায়ী গত ৩ জুলাই তারা তিনজন বাঘিয়া বিলের কাছে বেড়াতে যান। এরপর জাদু দেখানোর কথা বলে প্রথমে মাহমুদুল হাসানকে হাত-পা বেঁধে বিলের পানিতে চুবিয়ে হত্যা করেন। পরে হত্যাকাণ্ডের বিষয়ে জেনে যাওয়ায় সীমানা পিলারের ভাঙ্গা অংশ দিয়ে রাকিবকে হত্যা করা হয়। হত্যাকান্ডের পর নিহত মাহমুদুল হাসানের মোবাইলটি চন্দ্রা এলাকায় গ্রেপ্তার সৈকতের কাছে বিক্রি করে বাড়ি চলে যান।

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved ©আমাদের বাংলাদেশ ডট কম
Developed By amaderbangladesh.com