জাতীয় স্মৃতিসৌধে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি | আমাদেরবাংলাদেশ.কম
রবিবার, ২৯ জানুয়ারী ২০২৩, ০৮:০০ পূর্বাহ্ন

জাতীয় স্মৃতিসৌধে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি

  • সর্বশেষ আপডেট সোমবার, ১২ ডিসেম্বর, ২০২২

নিজস্ব প্রতিবেদক সাভার।। ৫১তম বিজয় দিবস উপলক্ষে সাভারের জাতীয় স্মৃতিসৌধে চলছে শেষ মুহূর্তের প্রস্তুতি। রং তুলি আর ফুলের সাজানো হচ্ছে পুরো সৌধ এলাকা। নিরাপত্তায় মোতায়েন রয়েছে পুলিশ, বসানো হয়েছে সিসিটিভি ক্যামেরা।

সোমবার (১২ ডিসেম্বর) দুপুরে স্মৃতিসৌধ এলাকায় গিয়ে দেখা গেছে,স্মৃতিসৌধের প্রধান ফটক ও দ্বিতীয় ফটকের সামনে সড়কের ডিভাইডারের রং করা হচ্ছে।

১৬ ডিসেম্বর মহান বিজয় দিবস। দিনটিতে রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীসহ সর্বস্তরের জনগণ বীর শহীদের প্রতি শ্রদ্ধা নিবেদন করেন। দিনটি উপলক্ষে সৌধ এলাকায় নেওয়া হচ্ছে ব্যাপক প্রস্তুতি। সৌধের বাইরেও সৌন্দর্যবর্ধনের জন্য নেওয়া হয়েছে নানা পদক্ষেপ।

স্মৃতিসৌধ এলাকার পরিচ্ছন্নতাকর্মী জলিল মিয়া জানান,সৌধের মোটামুটি ভাবে আমি ১৭ দিন যাবত সৌন্দর্য কাজ করছি। প্রধান ফটকসহ সবগুলো ফটকের সামনের সড়কে ডিভাইডারে রং করা হয়েছে। স্মৃতিসৌধের ভেতরে বিভিন্ন রঙের আলোকবাতি সংযোজনের কাজ চলছে। এছাড়া ফুল গাছসহ শোভাবর্ধক গাছে নতুন টব দেওয়া হচ্ছে।

এসময় তিনি আরোও বলেন,স্মৃতিসৌধের ৮৪ একর জমি জুড়েই পরিষ্কার-পরিচ্ছন্নতার কাজ শেষ হয়েছে। এখন চলছে শেষ মুহূর্তের ধোয়া-মোছার কাজ।

গণপূর্ত বিভাগের সাভার জাতীয় স্মৃতিসৌধের উপ-সহকারী প্রকৌশলী মিজানুর রহমান আমাদেরবাংলাদেশ.কম-কে বলেন,গত এক মাস ধরে স্মৃতিসৌধে ৮৪ একর জমি পরিষ্কার- পরিচ্ছন্নতার কাজ শুরু হয়েছে। ফুল দিয়ে সাজানো, লেক সংস্কার,সিসি ক্যামেরা স্থাপনসহ সব কাজ পুরোপুরি সম্পন্ন হয়েছে। ইতোমধ্যে ৪ ডিসেম্বর থেকে জাতীয় স্মৃতিসৌধ এলাকায় জনসাধারণের প্রবেশ নিষেধাজ্ঞা করা হয়েছে।

এছাড়া তিনি আরোও বলেন,পুলিশসহ আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্যদের সরব উপস্থিত দেখা গেছে। এদিকে,দিনটি উপলক্ষে নেওয়া হয়েছে বাড়তি নিরাপত্তা ব্যবস্থা। বাড়ানো হয়েছে নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর সদস্য।

নিরাপত্তার দায়িত্বে থাকা আশুলিয়া থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক আল মামুন কবিরের কাছে জানতে চাইলে আমাদেরবাংলাদেশ.কমে-কে বলেন,সব ধরনের নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে। নিরাপত্তার জন্য বসানো সিসিটিভি ক্যামেরায় সবকিছু মনিটরিং করা হচ্ছে। এরই মধ্যে সৌধ এলাকার বাইরে আতশবাজি ও উচ্চস্বরে মাইক বাজানোয় দেওয়া হয়েছে নিষেধাজ্ঞা।

এসময় তিনি আরোও বলেন,স্মৃতিসৌধ এলাকার সামনে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের ফুটপাতগুলো তুলে দেওয়া হয়েছে। আমরা ২৪ ঘণ্টা সৌধ এলাকা মনিটরিং করছি৷ গুরুত্বপূর্ণ পয়েন্টে বসানো নিরাপত্তা চৌকি। উল্লেখ্য,মহান বিজয় দিবস উপলক্ষে জাতীয় স্মৃতিসৌধে ৪ ডিসেম্বর থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত জনসাধারণের প্রবেশ ও চলাচল নিষেধ করা হয়েছে।

আমাদেরবাংলাদেশ.কম/রাজু

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved ©আমাদের বাংলাদেশ ডট কম
Developed By amaderbangladesh.com