নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ : ধর্ষক আটক | আমাদেরবাংলাদেশ.কম
শুক্রবার, ০৭ মে ২০২১, ০৬:৩৪ পূর্বাহ্ন

নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে ধর্ষণ : ধর্ষক আটক

  • সর্বশেষ আপডেট সোমবার, ৮ মার্চ, ২০২১
রফিকুল ইসলাম খান।। পাইকগাছায় নবম শ্রেণীর ছাত্রীকে বিয়ের প্রলোভন দিয়ে মা ও মেয়েকে বাড়ীতে ডেকে শরবতের সাথে ঘুমের ঔষধ খাওয়ায়ে জোরপূর্বক ধর্ষণের অভিযোগ। এ ঘটনায় থানায় ধর্ষণ মামলা হলে পুলিশ ধর্ষককে আটক করেছে।
ভিকটিমকে ডাক্তারী পরীক্ষার জন্য খুমেক হাসপাতালে পাঠিয়েছে। ঘটনাটি উপজেলার হরিঢালী ইউপির সোনাতনকাটি গ্রামে।
মামলা সূত্রে জানা যায়, গত ৩ মার্চ উপজেলার হরিঢালী ইউপির সোনাতনকাটি গ্রামের শেখ ফরিদ উদ্দীনের মেয়েকে একই ইউনিয়নের উত্তর সলুয়া গ্রামের মৃত রহিম বক্সর ছেলে মিজানুর রহমান (৪৫) চাকরীজীবি ছেলের সাথে বিয়ের প্রস্তাব দেয়। বাদী মেরিনা আক্তার মাছের ব্যবসার সুবাদে তাদের সাথে পরিচয়ের সুত্র ধরে মেয়েকে নিয়ে মিজানুরের বাড়ী যায়।
তখন মিজানুরের স্ত্রী বাড়ী ছিল না। মেরিনা পাত্রের কথা জিজ্ঞাস করলে মিজানুর জানায়, একটু বস পাত্র এক্ষুণে চলে আসবে। বসা অবস্থায় আমাদেরকে শরবত  খেতে দেয়। শরবত খাওয়ার পরপরই আমরা ঘুমিয়ে পড়ি। এক ঘণ্টা পর ঘুম থেকে
উঠে দেখি বাড়ীতে কেউ নেই। তখন আমরা সবাই মিলে মেয়েকে খুঁজতে থাকি। কিন্তু এক রাত আমার মেয়েকে খোঁজাখুজি করে পাওয়া যায়নি। পরের  দিন কপিলমুনি বাজারে সকাল ৭টার দিকে ধান্য চান্নিতে এলোমেলো অবস্থায় দেখতে পাই। তখন আমি আমার মেয়েকে বাড়ী নিয়ে আসি।
মেয়ের কাছে শুনে  বুঝে জানা যায়, তার ইচ্ছার বিরুদ্ধে পার্শ্ববর্তী কয়রা উপজেলায় নিয়ে নেশা জাতীয় ঔষধ খাওয়ায়ে ধর্ষণ করে।
এ ঘটনায় ভিকটিমের মা বাদী হয়ে পাইকগাছা থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে সংশোধনী ২০০৩ ইচ্ছার বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনে মামলা করে। ওসি এজাজ শফী জানান,ধর্ষন  মামলায় ধর্ষককে উপযুক্ত শাস্তির জন্য সবটুকু আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে। এব্যাপারে কোন প্রকার ছাড় দেয়া হবে না।

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved ©আমাদের বাংলাদেশ ডট কম
Developed By amaderbangladesh.com