বাড়ছে ঠান্ডা,জ্বর চরফ্যাশন হাসপাতালে শিশু রোগীর ভিড় | আমাদেরবাংলাদেশ.কম
সোমবার, ২০ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১০:৫১ অপরাহ্ন
সর্বশেষঃ
হিন্দু কল্যাণ ট্রাস্টকে দুর্গাপূজা উপলক্ষে ৩ কোটি টাকা দিলেন প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশ ভারত এর বন্ধুত্ব বিশ্বে রোল মডেল: নৌ-পরিবহন প্রতিমন্ত্রী শপথ নিলেন সিলেট-৩ এর সংসদ সদস্য হাবিবুর রহমান বেতন নিয়ে শিক্ষার্থীদের অভিভাবকদের চাপ না দেওয়ার নির্দেশ শিক্ষামন্ত্রীর দেড় বছরপর,কাল থেকে সারাদেশে খুলছে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান মহাপরিচালক ঘোষণার পরই হাটহাজারী মাদ্রাসার মুফতি আব্দুস সালামের মৃত্যু শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান ১২ সেপ্টেম্বর থেকে খোলা জাতীয় সংসদ সদস্যদের মৃত্যুর শোক নিয়েই যেনো চলতে হচ্ছে: প্রধানমন্ত্রী প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্নের উপহার আশ্রয়ন প্রকল্পে কথিত আওয়ামীগের নেত্রী বিউটির অর্থ-বাণিজ্য ক্যাপ্টেন নওশাদের মরদেহ এখন ঢাকায়

বাড়ছে ঠান্ডা,জ্বর চরফ্যাশন হাসপাতালে শিশু রোগীর ভিড়

  • সর্বশেষ আপডেট মঙ্গলবার, ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০২১
এআর সোহেব চৌধুরী চরফ্যাশন (ভোলা) থেকে।। ঠান্ডা,জ্বর,কাশি,নিউমোনিয়া ও শ্বাসকষ্টসহ বিভিন্ন রোগে আক্রান্ত শিশু রোগীর সংখ্যা প্রদিনই বাড়ছে চরফ্যাশন উপজেলায়। উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আউটডোরে শিশু চিকিৎসককে দেখানোর জন্য প্রতিদিন সকাল ৯টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত অন্তত দেড় থেকে ২শ শিশু রোগী নিয়ে সিরিয়ালে ভীড় করছেন রোগীর স্বজনরা।
এক মাস আগেও যেখানে ৬০ থেকে ৭০টি রোগী আসলেও বর্তমানে আসছে অন্তত ২শ জন। হাসপাতালে চিকিৎসকদের অফিস সময় শেষ হলে বন্ধ থাকে আউটডোর সার্ভিস। এসময় এসব রোগীদের জরুরী বিভাগে নিয়ে গেলে জরুরী বিভাগের কর্মরত চিকিৎসকরা রোগীদের। চরফ্যাশন হাসপাতালে আউটডোর, ইনডোর ও জরুরী বিভাগ মিলে প্রতিদিন প্রায় ৪শতাধীকের বেশি রোগী চিকিৎসা নিতে আসেন।
আগত এসব শিশুর বয়স শূন্য থেকে ৬বছর পর্যন্ত। এসব শিশু অধীক ঠান্ডা,জ্বর, নিউমোনিয়া ও ডায়রিয়া আক্রান্ত হলে হাসপাতালে ভর্তি করা হচ্ছে। চরফ্যাশন উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের জুনিয়র কনসালটেন্ট (শিশু বিশেষজ্ঞ) সুমিত্রা মজুমদার বলেন, ঋতু পরিবর্তনের কারণে সিজন্যাল ফ্লুতে আক্রান্ত শিশু রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। বর্ষা চলে যাওয়ায় হটাৎ ঠান্ডা গরমে শিশুদের সর্দি,জ্বর, কাশি,ডায়রিয়া,নিউেমোনিয়া,ব্রঙ্কিওলাইটিস, অ্যাজমা ও শ্বাসকষ্ট নিয়ে শিশু রোগী নিয়ে হাসপাতালে ছুটে আসছেন অভিভাবকরা।
তিনি আরও বলেন, ঠান্ডা জ্বরের পাশাপাশি ডায়রিয়াজনিত কারণে পানি শূন্যতা বেশি দেখা যাচ্ছে। এছাড়াও অন্যান্য মাসের চেয়ে বর্তমানে শিশু রোগীর সংখ্যা বাড়ছে। হাসপাতালের রোগতত্ব বিভাগের দায়িত্বে থাকা মেডিকেল অফিসার ডাক্তার আবদুল হাই বলেন, ১০০ সয্যা বিশিষ্ট চরফ্যাশন সরকারি হাসপাতালে আউটডোর, ইনডোর ও জরুরী বিভাগে আগত দেড় থেকে ২শ বিভিন্ন বয়সের রোগী ভর্তি করাতে হচ্ছে। এরমধ্যে প্রতিদিন ৫ থেকে ৭জন করে শিশু রোগী ভর্তি হচ্ছে। হাসপাতালে ওষুধ সাপ্লাই রয়েছে পাশাপাশি যেসকল ওষুধ হাসপাতালে সাপ্লাই নেই সেসব ওষুধ ফার্মেসী থেকে রোগীর স্বজনরা নিয়ে আসছে
আমাদেরবাংলাদেশ.কম/সিয়াম

শেয়ার করুন

এই ক্যাটাগরির আরও সংবাদ

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

© All rights reserved ©আমাদের বাংলাদেশ ডট কম
Developed By amaderbangladesh.com